× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ২২ মে ২০২২, রবিবার , ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২০ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

'অতিমারী শেষ হতে এখনও দেরি আছে', সতর্ক করলো বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

অনলাইন

মানবজমিন ডিজিটাল
(৪ মাস আগে) জানুয়ারি ১৯, ২০২২, বুধবার, ৩:৪৯ অপরাহ্ন

ওমিক্রনের পরে ফের আসতে পারে নতুন কোনো রূপ। তাই মহামারী এখনই শেষ হয়ে যাবে এমন ভাবার কোনো কারণ নেই। অতিমারী এখনও শেষ হয়নি এবং তা শেষের কাছেও পৌঁছায়নি। সতর্ক করলেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মহাপরিচালক ডাঃ টেড্রোস আধানম ঘেব্রেইসাস এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলেন, 'বিশ্বব্যাপী ওমিক্রনের অবিশ্বাস্য বৃদ্ধির সাথে, নতুন নতুন ভ্যারিয়েন্ট আবির্ভূত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। যে কারণে ট্র্যাকিং এবং তার মূল্যায়ন দিনকে দিন আরো জটিল হয়ে যাচ্ছে। ''অত্যন্ত সংক্রমণযোগ্য ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টটি গত বছরের শেষের দিকে প্রথম শনাক্ত করা হয়েছিল। ইউরোপ এবং বিশ্বব্যাপী তা রেকর্ড মাত্রায় ছড়িয়ে পড়েছে।
ডব্লিউএইচও কর্মকর্তারা বলেছেন যে, করোনার এই নতুন রূপটি কম গুরুতর হলেও এটি এখনও হাসপাতালে ভর্তি এবং মৃত্যু ঘটাচ্ছে। WHO প্রধান বিশ্ববাসীকে সতর্ক করে বলেন, কোনোভাবেই এটাকে সাধারণ সর্দিকাশি বলে উপেক্ষা করা ঠিক হবে না। তিনি জানিয়েছেন , “এই ভাইরাসটি একেবারেই সোজা কিছু নয়। আর এটাকে হালকাভাবে নেয়াও উচিত হবে না। ওমিক্রন ডেল্টার থেকে কম মারাত্মক বা যাদের টিকা নেয়া হয়ে গিয়েছে তাঁদের জন্য কম ক্ষতিকারক। কিন্তু এটাও বিপজ্জনক ভাইরাস। এর সংক্রমণের ফলেও হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার বা মৃত্যুর ঝুঁকি থাকছেই।” বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা -র ইমার্জেন্সি ডায়রেক্টরেট মাইকেল রিয়ান জানিয়েছেন , ভাইরাসটি যাতে সারা সমাজে অনিয়ন্ত্রিতভাবে ছড়িয়ে পড়তে সক্ষম না হয় ,সেই কারণেই আমরা মানুষকে সবরকমের সতর্কতা মেনে চলার পরামর্শ দিয়েছি। কোভিড-১৯ কে যখন নিয়মিত ঠান্ডা লাগা বা ফ্লু বলে উল্লেখ করছে স্থানীয় সরকাররা, তখনই সামনে এল হু - এর এই সতর্কবাণী। মারিয়া ভ্যান কেরখোভ, WHO -এর কোভিড-১৯ টেকনিক্যাল টিমের লিডার বলেছেন যে, 'ভাইরাসটি বিশ্বজুড়ে খুব দ্রুত গতিতে ছড়িয়ে পড়ছে। তাই সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা এবং মাস্ক এর ব্যবহার ছাড়লে চলবে না। কারণ এটি করোনার শেষ রূপ নয়। '' কর্মকর্তারা বলছেন, বর্তমান ভ্যারিয়েন্টটি বর্তমানে সর্বোচ্চ স্তরের অনাক্রম্যতা প্রতিরোধ করেছে, যার ফলে টিকা নেওয়া লোকেদের মধ্যে আরও সংক্রমণ ঘটছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বিজ্ঞানী সৌম্য স্বামীনাথন জানিয়েছেন , "ওমিক্রন অনেক ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা হ্রাস করেছে এবং সেই কারণেই আমরা প্রচুর সংক্রমণ দেখতে পাচ্ছি। তবে এগুলি বেশিরভাগই গুরুতর রোগের পরিণতি ডেকে আনেনি , যাকে একটি ইতিবাচক দিক বলে ধরে নেয়া যেতে পারে। "জনসংখ্যাকে বুস্টার শট দেয়ার বিষয়ে বিভিন্ন দেশগুলি কি ভাবছে সেদিকে নজর রাখছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। তবে তাঁর মতে যাঁরা এখনো একটি টিকাও পাননি তাদের আগে টিকা দেয়া প্রধান কাজ।

সূত্র : www.euronews.com
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর