× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ২৫ মে ২০২২, বুধবার , ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৩ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

টেকনাফে ২৩ কোটি টাকার মাদক আইস ও ইয়াবা উদ্ধার

বাংলারজমিন

টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি
২০ জানুয়ারি ২০২২, বৃহস্পতিবার

কক্সবাজারের টেকনাফে নাফ নদে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) অভিযান চালিয়ে ৪ কেজি ক্রিস্টাল মেথ আইস ও ৫০ হাজার ইয়াবা মাদক উদ্ধার করেছে। যা এখন পর্যন্ত দেশের সকল আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কর্তৃক ধৃত নিষিদ্ধ মাদক ক্রিস্টাল মেথ আইস এর সর্বোচ্চ চালান। এ ব্যাপারে গতকাল সকাল সাড়ে ১০টায় টেকনাফ ২ ব্যাটালিয়ন বিজিবির চিত্তবিনোদন কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে। এতে টেকনাফ ব্যাটালিয়ন (২ বিজিবি) অধিনায়ক লে. কর্নেল শেখ খালিদ মোহাম্মদ ইফতেখার জানান, গোপন সংবাদে জানা যায়, মঙ্গলবার (১৮ই জানুয়ারি) রাতে হ্নীলা ইউনিয়নের দমদমিয়া বিওপি’র বিআরএম-৮ থেকে আনুমানিক ২ কিলোমিটার উত্তর-পূর্ব দিকে জালিয়ারদ্বীপ এলাকার পার্শ্ববর্তী নাফ নদীর সীমান্ত দিয়ে মাদকের একটি বড় চালান মিয়ানমার হতে বাংলাদেশে পাচার হতে পারে। ওই সংবাদে টেকনাফ ব্যাটালিয়ন ২ বিজিবি এর ব্যাটালিয়ন সদর এবং দমদমিয়া বিওপি হতে দুইটি বিশেষ টহল নাফ নদের জালিয়ারদ্বীপ-এ কৌশলে অবস্থান গ্রহণ করে। এক পর্যায়ে রাত পৌনে ১১টার দিকে টহলদল একটি হস্তচালিত কাঠের নৌকা মিয়ানমারের শোয়ারদ্বীপ এলাকা থেকে নাফ নদ পার হয়ে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে জালিয়ারদ্বীপের দিকে আসতে দেখে। নৌকাটি শূন্য রেখা অতিক্রম করে কাছাকাছি আসলে বিজিবি’র টহলদল নৌকাটিকে চ্যালেঞ্জ করে। নৌকার আরোহীরা বিজিবি’র চ্যালেঞ্জকে উপেক্ষা করে নৌকা ঘুরিয়ে মিয়ানমার সীমান্তের দিকে চলে যেতে থাকলে নৌকাটিকে লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়ে থামানোর চেষ্টা করে।
এতে অজ্ঞাতনামা চোরাকারবারীরা নৌকা হতে লাফিয়ে নাফ নদ দিয়ে মিয়ানমারের অভ্যন্তরে পালিয়ে যায়। পরে বিজিবি’র টহলদল স্পীড বোটের সাহায্যে নৌকাটি আটক করতে সক্ষম হয়। নৌকাটি তল্লাশি করে ভেতরে পাটাতনের নিচে একটি বস্তার ভেতরে লুকানো অবস্থায় ২২ কোটি ৩৭ লাখ ৫০ হাজার টাকা মূল্যের ৪.১৭৫ কেজি ক্রিস্টাল মেথ আইস এবং ৫০ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। তিনি আরও জানান, চোরাকারবারীদেরকে আটকের জন্য পার্শ্ববর্তী স্থানে অভিযান পরিচালনা করা হলেও কোনো চোরাকারবারী কিংবা তাদের সহযোগীকে আটক করা সম্ভব হয়নি। তবে উক্ত চোরাকারবারীদের শনাক্ত করার জন্য অত্র ব্যাটালিয়নের গোয়েন্দা কার্যক্রম চলমান রয়েছে।
এদিকে গতকাল মঙ্গলবার সেন্টমার্টিনের অদূরে সাগরে কোস্টগার্ড অভিযান চালিয়ে ১১ লাখ ৯৫ হাজার ৬০০ পিস ইয়াবা, ১টি বিদেশি এসএমজি বন্দুুক, ৩০ রাউন্ড গোলা, ২টি ম্যাগাজিন ও ১টি ট্রলার জব্দ করে। এছাড়া অপর একটি অভিযানে শাহপরীরদ্বীপ নাফ নদ থেকে ৩৪ হাজার ৮০০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর