× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ২০ মে ২০২২, শুক্রবার , ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৮ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

বর্ষসেরা টেস্ট দলে ভারত-পাকিস্তানের আধিপত্য

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক
২০ জানুয়ারি ২০২২, বৃহস্পতিবার

পারফরম্যান্স বিচারে ২০২১ সালের সেরা টেস্ট একাদশ বাছাই করেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। একাদশে ভারত ও পাকিস্তানের ক্রিকেটার রয়েছেন তিনজন করে। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ জেতা নিউজিল্যান্ডের রয়েছেন দু’জন। শ্রীলঙ্কা, অস্ট্রেলিয়া এবং ইংল্যান্ডের ক্রিকেটার আছেন একজন করে। একাদশের অধিনায়ক মনোনীত হয়েছেন নিউজিল্যান্ডের কেন উইলয়ামসন।

ওপেনার হিসেবে ভারতের রোহিত শর্মার সঙ্গে রয়েছেন শ্রীলঙ্কার দিমুথ করুনারত্নে। গত বছর ৭ ম্যাচে ৬৯.৩৮ গড়ে ৯০২ রান সংগ্রহ করেন করুনারত্নে। সেঞ্চুরি হাঁকান ৪টি। পাল্লেকেলেতে বাংলাদেশের বিপক্ষে তার ব্যাট থেকে আসে দ্বিশতক।
রোহিত শর্মা ৪৭.৬৮ গড়ে ৯০৬ রান করেন। সেঞ্চুরি হাঁকান দুটি।

তিন নম্বর পজিশনে থাকা অজি ব্যাটার মারনাস লাবুশেন ছিলেন তুখোড় ফর্মে। ৫ ম্যাচে ৬৫.৭৫ গড়ে তার সংগ্রহ ৫২৬ রান। সেঞ্চুরি দুটি। টেস্টে গত বছরটা ইংল্যান্ড দলের জন্য দুঃস্বপ্নময় কাটলেও ব্যক্তিগত নৈপুণ্যে উজ্জ্বল ছিলেন অধিনায়ক জো রুট। ১৫ ম্যাচে ৬১ গড়ে ১৭০৪ রান করেন তিনি। টেস্টে এক বর্ষপঞ্জিতে তৃতীয় সর্বাধিক রানের রেকর্ড এটি। কীর্তি গড়ার পথে রুট সেঞ্চুরি হাঁকান ৬টি।

কিউই অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন নেতৃত্বের মানদ-ে ছিলেন সবার উর্ধ্বে। তার অধিনায়কত্বেই টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ জেতে নিউজিল্যান্ড। ব্যাট হাতেও উইলিয়ামনসন দলের ভরসা ছিলেন। ৪ ম্যাচে এক সেঞ্চুরিসহ ৬৫.৮৩ গড়ে তার সংগ্রহ ৩৯৫ রান।

২০২১ সালটা ৩৬ বছর বয়সী ফাওয়াদ আলমের জন্য ছিল পুনর্জন্ম। ৯ ম্যাচে ৫৭.১০ গড়ে পাকিস্তানের এই মিডল অর্ডার ব্যাটার সংগ্রহ করেন ৫৭১ রান। দক্ষিণ আফ্রিকা, জিম্বাবুয়ে এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজের কঠিন কন্ডিশনে সেঞ্চুরি হাঁকান তিনটি।

উইকেটরক্ষক ক্যাটগারিতে জায়গা পাওয়া ঋষভ পন্ত ১২ ম্যাচে ৭৪৮ রান করেছেন। সেঞ্চুরি একটি। ২৩ ইনিংসে ৩৯টি ডিসমিসালও রয়েছে পন্তের নামের পাশে।

বল হাতে ব্যাটারদের ত্রাস ছিলেন রবি অশ্বিন। ৯ ম্যাচেই এই অফস্পিনারের শিকার ৫৪ উইকেট। ব্যাট হাতে ২৫.৩৫ গড়ে করেছেন ৩৫৫ রান। রয়েছে একটি সেঞ্চুরিও।

কিউই পেসার কাইল জেমিসন ৫ ম্যাচে নেন ২৭ উইকেট। এছাড়া ব্যাট হাতে ১৭.৫০ গড়ে ১০৫ রান করেন। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে ম্যাচসেরা খেলোয়াড় হয়েছিলেন জেমিসন।

টেস্টে হাসান আলীর ক্যারিয়াসেরা বছর কেটেছে। ৯ ম্যাচে ১৬.০৭ গড়ে তার শিকার ৪১ উইকেট। তার সতীর্থ শাহীন শাহ আফ্রিদিও বল হাতে ছিলেন দুর্দান্ত। ৯ ম্যাচে ১৭.০৬ গড়ে নিয়েছেন ৪৭ উইকেট।

বর্ষসেরা টেস্ট দল: দিমুথ করুনারত্নে (শ্রীলঙ্কা), রোহিত শর্মা (ভারত), মারনাস লাবুশেন (অস্ট্রেলিয়া), জো রুট (ইংল্যান্ড), কেন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক-নিউজিল্যান্ড), ফাওয়াদ আলম, ঋষভ পন্ত (উইকেটরক্ষক-ভারত), রবিচন্দ্রন অশ্বিন (ভারত), কাইল জেমিসন (নিউজিল্যান্ড), হাসান আলী (পাকিস্তান), শাহীন আফ্রিদি (পাকিস্তান)।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর