× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ২০ মে ২০২২, শুক্রবার , ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৮ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

ট্রফির চাপ নিয়ে খেলতে চান না সাকিব

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার
২১ জানুয়ারি ২০২২, শুক্রবার

বিপিএলের তরুণ অধিনায়ক মেহেদী হাসান মিরাজ। ৮ম আসরে নেতৃত্ব দেবেন চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের। আসরে প্রথম দিনই তার দল মুখোমুখি হবে বাংলাদেশের সাবেক টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক ও বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের দল ফরচুন বরিশালের। যাদের লক্ষ্য এবার শিরোপা ঘরে তোলা। বিপিএলে এখনো পর্যন্ত কোনো শিরোপা জিততে পারেনি বরিশাল। ফ্র্যাঞ্চাইজি মালিকানা বদলেও মেলেনি আসেনি কাঙ্ক্ষিত সাফল্য। এর আগে ফাইনালে গিয়ে স্বপ্ন ভেঙেছে কয়েকবার। ২০১৬ সালের পর অবশ্য বরিশালের কোনো দলই ছিলো না বিপিএলে।
এবার তারা ফিরেছে নতুন রূপে। দলের অধিনায়ক সাকিবও অকপটে বলেছেন তার চোখ ট্রফির দিকেই। তবে প্রত্যাশাকে নিজেদের ওপর চাপ হিসেবে নিতে চান না সাকিব। তিনি বলেন, ‘না ওরকম (শিরোপা) কোনো চাপ আমার কখনোই মনে হয়নি। এখনো মনে হচ্ছে না। যেটা বললাম যে ৬ দলই চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্য খেলতে চায়। আমরাও তার ব্যতিক্রম নই, যদি হতে পারি ভালো। কিন্তু না হতে পারলেও তেমন কিছু করার থাকবে না, তবে আমরা যেটা করতে পারি মাঠে আমাদের শতভাগ দিয়ে চেষ্টা করতে পারি। একটা দল হিসেবে খেলতে পারি, সাকসেস আনার জন্য যা যা করা দরকার করতে পারি।’
ফরচুন বরিশাল সাকিব ছাড়াও দেশি-বিদেশি তারকায় ঠাসা। চ্যাম্পিয়ন হওয়ার মতো দল নিয়ে নিজেদের সেরাটা দিতে চায় তারা। দলে আছেন  দেশি অভিজ্ঞ ক্রিকেটার নুরুল হাসান সোহান, ইরফান শুক্কুর, জিয়াউর রহমান। বিদেশি ক্যাটাগরিতে রয়েছেন টি-টোয়েন্টির বড় বিজ্ঞাপন ক্রিস গেইল। যদিও প্রথম ম্যাচে তাকে পাওয়া যাচ্ছে না। এছাড়াও আছেন টি-টোয়েন্টি তারকা ডোয়াইন ব্রাভো ও আফগান স্পিন তারকা মুজিব উর রহমান। নিজেদের দল শিরোপা জেতার দৌড়ে এগিয়ে থাকছে সেটা এখনই মানতে নারাজ সাকিব। টুর্নামেন্টের কয়েক ম্যাচে খেলেই তবে সেসব নিয়ে ভাবতে চান টাইগার অলরাউন্ডার। তিনি বলেন, ‘টুর্নামেন্ট শুরুর আগে এগুলো বলা মুশকিল। বাকি পাঁচ দলের সঙ্গে একই রকম মনে হচ্ছে আমাদের স্কোয়াড। শুরুর দুই-একটা ম্যাচ গেলে হয়তো অনেক বেশি অ্যানালাইসিস করা সম্ভব। এখন যেটা মনে হচ্ছে খুবই ব্যালান্স একটা দল। তবে টুর্নামেন্ট শুরু হলে তারপরও আসল অবস্থা বুঝা যাবে।’
ডিরেক্ট সাইনিংয়ে নাসুম আহমেদকে দলে টেনেছিল চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। ড্রাফট থেকেও দেশি কোনো সুপারস্টার দলে টানেনি ফ্র্যাঞ্চাইজিটি। তাই চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের অধিনায়ক কে হবেন তা জানার আগ্রহ ছিল সবারই। সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে বুধবার অধিনায়কের নাম ঘোষণা করে দলটি। মেহেদী হাসান মিরাজ চ্যালেঞ্জার্সের পক্ষে টস করতে নামবেন। এই দায়িত্বের প্রতিদান দিতে চান এই তরুণ অধিনায়ক। তিনি বলেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ, আমি এ বছর চট্টগ্রামের হয়ে প্রথম খেলছি। চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স আমাকে যে সম্মান দিয়েছে। নিজের সেরাটা দিয়ে তার প্রতিদান দিতে চেষ্টা করবো। অভিজ্ঞদের পাশাপাশি ইয়াং ও প্রমিজিং খেলোয়াড়দের নিয়ে দলটা গড়া হয়েছে; যারা আগামীতে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিতে পারবেন।’ দলের ওপর নিজের আস্থা নিয়ে মিরাজ বলেন, ‘কর্তৃপক্ষ তরুণদের ওপর আস্থা রেখেছেন। আমি মনে করি, আমাদের সকলের চ্যালেঞ্জ নিতে হবে, এটা আমাদের দায়িত্ব। দলে একাধিক সিনিয়র খেলোয়াড় রয়েছেন, যারা অনেকদিন বাংলাদেশকে সার্ভিস দিয়েছেন। আমি তাদের সহযোগিতা চাইছি। সকলে সহযোগিতা করলে অধিনায়ক হিসেবে আমার কাজটা সহজ হবে। দলকে ভালো একটা জায়গায় দাঁড় করাতে নিজের সেরাটা দিয়ে চেষ্টা করবো। টিম ম্যানেজম্যান্টকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। সমর্থকদের উদ্দেশ্যে বলবো, আপনারা আমাদের পাশে থাকুন। আমরা সেরাটা দিয়ে ভালো কিছু করতে চেষ্টা করবো।’
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর