× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ১৯ মে ২০২২, বৃহস্পতিবার , ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৭ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

মাধবপুরে ড্রেনের পচা দুর্গন্ধে জনজীবন অতিষ্ঠ

বাংলারজমিন

মাধবপুর (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি
২২ জানুয়ারি ২০২২, শনিবার

 হবিগঞ্জের মাধবপুর পৌরসভার পুরাতন গরু বাজারে ড্রেনের দুর্গন্ধে ক্রেতা, বিক্রেতাসহ স্থায়ী বসবাসরত পরিবারগুলো অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। সরজমিন গিয়ে দেখা যায়, পৌরসভার পুরাতন গরু বাজারের পাশে অপরিকল্পিতভাবে ড্রেনে বাজারের কিছু অসাধু গরুর মাংসের ও মোরগ ব্যবসায়ীরা নিয়মিত আবর্জনা ও নানা রকমের বর্জ্য নিক্ষেপ করে আসছে। এতে এসব আবর্জনা পরিষ্কার না করার কারণে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে বলে স্থানীয় অন্য সাধারণ ব্যবসায়ী ও এলাকার বাসিন্দারা অভিযোগ করেছেন।
বাজারের একাধিক ব্যবসায়ী ও ক্রেতা সাধারণ জানান, আমাদের আশেপাশে গরুর মাংস ও মোরগ ব্যবসায়ীরা গরু ও মোরগের জবাইয়ের পর অবশিষ্ট যাবতীয় বর্জ্য ড্রেনে ফেলে দেয়। ওই বর্জ্য ও ময়লা পানি সরানোর কোনো ব্যবস্থা নাই। ফলে জমাট বাঁধা বর্জ্য ও পচা পানির গন্ধে স্বাস্থ্যহানির মতো ভয়ানক পরিবেশের সৃষ্টি হয়েছে। আমাদের দোকানে ক্রেতারা খুবই কম আসে পচা দুর্গন্ধে ব্যবসার অবস্থা ভালো নেই। এতে শিশুরাই বেশি আক্রান্ত হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বাজারের স্থায়ী বসবাসকারী কাজী জয়নাল জানায়, ছোট্ট পরিসরে নির্মিত ড্রেনের পানি নিষ্কাশনতো হচ্ছেই না, উপরন্তু ময়লা পানি ও বর্জ্যে একাকার হয়ে সৃষ্ট দুর্গন্ধে ক্রেতা সাধারণ স্বাস্থ্যঝুঁকিতে রয়েছে।
বাজারের স্থায়ী আরেক বাসিন্দা ইউনুস জানায়, বাজারে পৌরসভা কর্তৃক ড্রেনসহ বাজার পরিচ্ছন্ন রাখার বাধ্যবাধকতা থাকলেও প্রতিদিন সকালে পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা শুধু রাস্তা পরিষ্কার করে চলে যায় শতভাগ দায়িত্ব পালন করছে না।
এ ব্যাপারে ৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শেখ জহিরুল ইসলাম বলেন, স্থানীয় ব্যবসায়ী ও জনসাধারণ মৌখিক অভিযোগ করেছে। বাজারের গরুর মাংস, মোরগ ব্যবসায়ীসহ সকল ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জনগণের স্বাভাবিক জীবনমান ফিরিয়ে আনতে অতিদ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর