× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ২৯ মে ২০২২, রবিবার , ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৭ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

লক্ষ্মীপুরে স্কুলছাত্রী অপহরণের ১৪ দিন পরও উদ্ধার হয়নি

বাংলারজমিন

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি
২৩ জানুয়ারি ২০২২, রবিবার

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার উত্তর জয়পুর থেকে অপহৃত  কিশোরী স্কুলছাত্রীকে ১৪ দিনেও উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। এদিকে অপহরণকারীদের বিরুদ্ধে চন্দ্রগঞ্জ থানায় দায়ের করা মামলা প্রত্যাহার করার জন্য আসামিরা নানা হুমকি-ধমকি দিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন ওই ছাত্রীর পরিবার। তবে এখনো কিশোরীকে উদ্ধার করতে না পারায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন পরিবার ও স্বজনরা। পুলিশ ও ভুক্তভোগীর পরিবার জানায়, গাজীপুর জেলার শ্রীপুর থানার চর্ণপাড়ার বাসিন্দা ইব্রাহীমের কিশোরী মেয়ে লাবণ্য আক্তার (১৫) লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার উত্তর জয়পুর এলাকার নানার বাড়িতে বেড়াতে আসে। গত ৮ই জানুয়ারি বিকালে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে একই উপজেলার বাঙ্গাখাঁ এলাকার বাসিন্দা লাবণ্য আক্তারের ফুফা ইউছুফের নেতৃত্বে পরিবারের লোকজন নানার বাড়ির দরজা থেকে তাকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরে ইউসুফ হোসেনের ছেলে স্কুলপড়ুয়া কিশোর পুত্র সাহেদ হোসেন (১৯)-এর সঙ্গে জোরপূর্বক বাল্যবিয়ে সম্পন্ন করে। খবর পেয়ে লাবণ্যের বাবা-মা পরেরদিন গাজীপুর থেকে এসে বাঙ্গাখাঁ গ্রামে মেয়েকে উদ্ধার করতে গেলে পরিবারের লোকজন তাদের ওপর হামলা করে। ঘটনার খবর শুনে ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছার আগে লাবণ্যকে নিয়ে পালিয়ে যায় অপহরণকারীরা।
গত ১২ই জানুয়ারি কিশোরী স্কুলছাত্রী লাবণ্যের মা লাকী আক্তার বাদী হয়ে চন্দ্রগঞ্জ থানায় ৫ জনের বিরুদ্ধে অপহরণ মামলা দায়ের করে। ওইদিন রাতে মামলা না নেয়ার জন্য  চন্দ্রগঞ্জ থানায় তদবির করতে এলে  কিশোরীর ফুফা ইউছুফকে আটক করে। পরে দায়েরকৃত মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে জেল হাজতে প্রেরণ করে। মামলার বাদী লাকী আক্তার শনিবার বিকালে আদালত প্রাঙ্গণে কান্নাজড়িত কণ্ঠে অভিযোগ করে বলেন, মামলা তুলে নিতে নানাভাবে চাপ ও হুমকি-ধমকি দিচ্ছে ইউসুফ হোসেনের পরিবার। এদিকে পুলিশ ১৪ দিনও কিশোরী মেয়েকে উদ্ধার করতে না পারায় চরম দুশ্চিন্তা ও নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে রয়েছেন। দ্রুত মেয়েকে উদ্ধার করার দাবি জানান তিনি।
চন্দ্রগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একে ফজলুল হক বলেন, এ ঘটনায় থানায় ৫ জনকে আসামি করে অপহরণ মামলা রুজু করা হয়েছে। মামলার আসামি ইউসুফ হোসেনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। পাশাপাশি অপহৃত মেয়েকে উদ্ধারে পুলিশ অভিযান অব্যাহত রেখেছে। দ্রুত আসামিদের গ্রেপ্তার ও ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করতে পারবেন বলে আশা করেন তিনি।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর