× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ২০ মে ২০২২, শুক্রবার , ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৮ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

বিশ্বকাপে নিজেদের ফেভারিট ভাবছেন মরগান

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক
২৩ জানুয়ারি ২০২২, রবিবার

দুর্দান্ত খেলেও গত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ থেকে খালি হাতে ফিরেছে ইংল্যান্ড। সেমিফাইনালে নাটকীয়ভাবে তারা হেরে যায় নিউজিল্যান্ডের কাছে। দেখতে দেখতে চলে এল চার-ছক্কার আরেকটি আসর। অক্টোবরে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে নিজেদের ফেভারিট ভাবছেন ইংলিশ অধিনায়ক এউইন মরগান।
সাবেক ইংলিশ অধিনায়ক মাইকেল ভনের এক মন্তব্য এরই মধ্যে ঝড় তুলেছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। ভন বলেছেন, ‘ফাইনালে ইংল্যান্ড বনাম অন্য দল কোনটি?’ এবার মরগানও বললেন তারা ফেভারিট। তবে ফেভারিটের তালিকায় বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ও আসরের স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়াকেও রেখেছেন মরগান। সংবাদমাধ্যম ‘পার্থ নাউ’-কে তিনি বলেন, ‘অস্ট্রেলিয়া ফেভারিট।
আমি মনে করি আমরাও শিরোপার দাবিদার।’
কিছুদিন আগেই অস্ট্রেলিয়ায় গিয়ে ৪-০তে অ্যাশেজ হেরেছে ইংল্যান্ড। তবে সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে থ্রি লায়নদের নিয়ে আশাবাদী মরগান। আরব আমিরাতের চাইতে অস্ট্রেলিয়ার উইকেট গতিময়। অনিয়মিত বাউন্স নেই। বিগ ব্যাশের সুবাদে সেখানকার কন্ডিশন সম্পর্কে ভালোই ধারণা রয়েছে ইংলিশ ক্রিকেটারদের। অস্ট্রেলিয়ার বিগ ব্যাশ টি-টোয়েন্টি লীগ মাতাচ্ছেন অ্যালেক্স হেলস, জেমস ভিন্স, সাকিব মাহমুদ, স্যাম বিলিংস, ক্রিস জর্ডান, টাইমাল মিলস, জর্জ গার্টনের মতো ক্রিকেটাররা। এদের মধ্যে সাকিব মাহমুদ, স্যাম বিলিংস, ক্রিস জর্ডান, জর্জ গার্ডন ও টাইমল মিলস রয়েছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে চলমান পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে। মরগান বলেন, ‘আমরা অস্ট্রেলিয়ার কন্ডিশনের ভিন্নতা জানি। আমাদের ছেলেরা ওখানে ভালো খেলে। আমরা জানি অস্ট্রেলিয়ায় কি কাজে দেয়।’ ইতিমধ্যেই বিশ্বকাপের গ্রুপিং ও সূচি প্রকাশিত হয়েছে। ২০১০ সালের চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড, বর্তমান চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, আফগানিস্তান রয়েছে ‘১’ নম্বর গ্রুপে। প্রথম রাউন্ডে কোয়ালিফায়ারের পর আরো দু’দল যুক্ত হবে এই গ্রুপে। গ্রুপ পর্বের প্রতিপক্ষগুলোর মধ্যে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ২০ টি-টোয়েন্টিতে ৯ জয়, ১০ হার, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ২২ ম্যাচে ১২ জয়, ৮ হার এবং আফগানিস্তানের বিপক্ষে ২ ম্যাচে ২ জয় পেয়েছে ইংল্যান্ড।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর