× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ২৯ মে ২০২২, রবিবার , ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৭ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

উল্লাপাড়ায় শাশুড়ি ও পুত্রবধূর চুল কর্তন

বাংলারজমিন

উল্লাপাড়া (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি
২৪ জানুয়ারি ২০২২, সোমবার

গতকাল সকাল ৯টার দিকে উল্লাপাড়া উপজেলার উধুনিয়া ইউনিয়নের তরফ ভায়ড়া গ্রামে ৩টি বাড়িতে হামলা চালানো হয়। এ সময় এসব বাড়ির ঘর-দরজা, আসবাবপত্র ভাঙচুর এবং লুটপাট করা হয়। একপর্যায়ে এই গ্রামের শাশুড়ি ও তার পুত্রবধূর চুল কেটে দেয়া হয় বলে অভিযোগ করা হয়েছে। এই ঘটনায় প্রায় ১৭ লাখ টাকার ক্ষতি করা হয়েছে বলে অভিযোগকারীরা জানান। গ্রামের জিল্লুর রহমান, বাবলু সরকার ও মো. আলহাজ অভিযোগ করেন, পূর্ব গোলযোগের জের ধরে একই গ্রামের আব্দুল মজিদ মেম্বারের লোকজন পরিকল্পিত ভাবে তাদের ঘরবাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর ও লুটপাট করে। এ সময় তাদের ৪ ব্যক্তি আহত হয়। মজিদ বাহিনী আলহাজ আলীর মা হাসনা খাতুন ভানু (৬০) এবং তার স্ত্রী নীলা খাতুনের (৩০) চুল কেটে দিয়ে তাদের বাড়ি থেকে বের করে দেয়। হামলাকারীরা এ সময় নগদ টাকা ও সোনাদানাসহ প্রায় ১৭ লাখ টাকার মালামাল লুটে নেয়।
বিষয়টি উল্লাপাড়া মডেল থানায় জানালে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। অভিযোগকারীরা আরও জানান, কথিত মজিদ বাহিনী প্রধান আব্দুল মজিদ গ্রামে এর আগেও এই ধরনের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালিয়ে অনেক পরিবারের ক্ষতি করেছে। মজিদের বিরুদ্ধে তরফ ভায়ড়া গ্রামের বেশ কয়েকটি পরিবারের জমি এবং সরকারি খাস জমি দখলেরও অভিযোগ রয়েছে। মজিদ তরফ ভায়ড়া গ্রামের সরকারি খেলার মাঠ, সরকারি রাস্তা দখল করে অন্য ব্যক্তিদের কাছে বিক্রি করে দিয়েছে এবং সেখানে তাদের ঘরবাড়ি নির্মাণ করে দিয়েছে। ফলে অনেক বাড়ির লোকজনের বের হওয়ার রাস্তা বন্ধ হয়ে গেছে। এ ব্যাপারে উল্লাপাড়া মডেল থানায় যোগাযোগ করা হলে উপ-পরিদর্শক আব্দুস সালাম জানান, খবর পেয়ে তিনি পুলিশ বাহিনী নিয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। ইতিমধ্যেই এ ব্যাপারে ঘটনার শিকার উক্ত গ্রামের জিল্লুর রহমান, বাবলু সরকার ও আলহাজ আব্দুল মজিদ বাহিনীর বিরুদ্ধে পৃথক পৃথক অভিযোগপত্র দিয়েছে। পুলিশ এ ব্যাপারে তদন্ত শুরু করেছে। হামলার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিরা পালিয়ে গেছে। অভিযুক্ত মজিদের সঙ্গে বারবার মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর