× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ২৯ মে ২০২২, রবিবার , ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৭ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

কুড়িগ্রাম সদর থানার উপ-পরিদর্শকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

বাংলারজমিন

পঞ্চগড় প্রতিনিধি
২৪ জানুয়ারি ২০২২, সোমবার

তদন্ত করতে গিয়ে তৎকালীন পঞ্চগড় সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবদুল জলিল ডায়েরি করা বিধবা নারীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলার পর বিয়ের ভুয়া কাবিননামা তৈরি করে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলেন। এক সময় কাবিননামা দিতে অস্বীকার করলে ওই নারী ২০২০ সালের ৬ই অক্টোবর আদালতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় পঞ্চগড় নারী শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক মো. মেহেদী হাসান তালুকদার বর্তমানে কর্মরত কুড়িগ্রাম সদর থানার উপ-পরিদর্শক আবদুল জলিলের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন। গতকাল রোববার দুপুরে আদালত এই গ্রেপ্তারি পরোয়ানার আদেশ দেন। আদালত সূত্রে জানা গেছে, পঞ্চগড় পৌরসভাধীন রৌশনাবাগ এলাকার আসমা প্রধান নামের এক নারী ২০২০ সালের ৩০শে এপ্রিল জমি-সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে পঞ্চগড় সদর থানায় একটি ডায়েরি করেন। মামলা হওয়ার পর আদালত মামলাটি তদন্তের জন্য অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে দায়িত্ব দেন। গত ২০শে জানুয়ারি অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। গতকাল আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে ওই উপ-পরিদর্শকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।
ভুক্তভোগী আসমা প্রধান জানান, পুলিশের উপ-পরিদর্শক আবদুল জলিল ভুয়া কাবিননামা করে আমার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে। আর কোনো নারী যেন সেবা নিতে গিয়ে নির্যাতন বা ধর্ষণের শিকার না হয় এজন্য তিনি তার শাস্তি দাবি করেন। মামলায় বাদীর আইনজীবী এডভোকেট মেহেদী হাসান মিলন উপ-পরিদর্শক আবদুল জলিলের বিরুদ্ধে পঞ্চগড় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালত গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন বলে নিশ্চিত করেছেন। পঞ্চগড় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) এডভোকেট আজিজার রহমান আজু বলেন, প্রাপ্ত অনুসন্ধান প্রতিবেদনের ভিত্তিতে আদালতের বিচারক মামলাটি আমলে নিয়ে তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর