× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ২৯ মে ২০২২, রবিবার , ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৭ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

নৌকায় ভোট না দেয়ায় গ্রামবাসীর বিরুদ্ধে মামলা

বাংলারজমিন

শ্রীমঙ্গল (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি
২৪ জানুয়ারি ২০২২, সোমবার

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে নৌকায় ভোট না দেয়ায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মারধরের ঘটনাকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করে ইভটিজিংয়ের মিথ্যা অভিযোগ সাজিয়ে মামলা করে গ্রামের নিরীহ ছাত্র-যুবকদের হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। নির্বাচনী প্রতিহিংসার জের ধরে স্থানীয় ভুনবীর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে গ্রামবাসীর বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে হয়রানি করছে বলে অভিযোগ করেছেন গ্রামের সাধারণ মানুষ। এনিয়ে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে গ্রামবাসী। গতকাল সকাল ১০টায় থেকে ঘণ্টাব্যাপী উপজেলার ভুনবীর ইউনিয়নের স্থানীয় ভুনবীর চৌমুহনা পয়েন্টে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। এতে আলীশারকুল গ্রামের শত শত নারী-পুরুষ অংশ নেন। মানবন্ধনে অংশ নেয়া গ্রামের লোকজন বলেছেন, আমরা গ্রামের নিরীহ মানুষ। কৃষিকাজ করে জীবিকা নির্বাহ করি। চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ নির্বাচনী প্রতিহিংসার জের ধরে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছেন।
জানা গেছে, গত ১৯শে জানুয়ারি গোপেন্দ্রগঞ্জ বাজারে দশরথ স্কুলের এক ছাত্রীকে উত্যক্তর ঘটনার প্রতিবাদ করার জের ধরে কয়েকজন যুবক দশম শ্রেণির ছাত্র তারেক মিয়ার ওপর হামলা করে। এমন অভিযোগ এনে তারেক মিয়ার পিতা আব্দুল মালেক আলীশারকুল গ্রামের ৯ যুবকের বিরুদ্ধে শ্রীমঙ্গল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মানববন্ধন কর্মসূচিতে অংশ নেয়া আলীশারকুল গ্রামের আব্দুল আহাদ নামে এক যুবক অভিযোগ করে বলেন, স্কুলছাত্রীকে উত্যক্ত করার অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা ও সাজানো। মূলত গেল ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদকে নৌকা মার্কায় ভোট না দেয়ায় তিনি কোমলমতি শিক্ষার্থীদের ব্যবহার করে গ্রামের যুব ও ছাত্রদের নামে হয়রানিমূলক মিথ্যা মামলা সাজিয়েছেন। আহাদ বলেন, এই মামলায় ঢাকার পাওয়ার প্ল্যান্টে এক কর্মজীবী নিরপরাধ ছেলে ও স্কুল কলেজের ছাত্র তিন ভাতিজাকে আসামি করা হয়েছে। তারা এখন ঘরছাড়া। নায়ারায়ণগঞ্জে মেঘনা গ্রুপে কর্মরত গ্রামের এক শ্রমিক সাজিদ মিয়াকেও আসামি করা হয়েছে। একই কথা বলেন, নাছির মিয়া নামে এক ব্যবসায়ী। তিনি বলেন, আমার এক ভাগ্নে মো. নাজু মিয়া সাতগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র, তাকেও কয়েক দশরথ স্কুলের ছাত্রীকে উত্যক্ত করার সাজনো অভিযোগে আসামি করা হয়েছে। জয়নাল মিয়া নামে এক কৃষক জানান, নির্বাচনে রশিদ মিয়া নৌকার বিপক্ষে ঘোড়া মার্কায় আমরা ভোট দিয়েছি। এমন সন্দেহের বসে আমার কলেজছাত্র ছেলে রাজুর মিয়াকে মামলায় ফাঁসানো হয়েছে। মানববন্ধন কর্মসূচিতে অন্যান্যের মধ্যে গ্রামের আহাদ মিয়া, ইউসুফ মিয়া, কবির মিয়া, কালা মিয়া, নাছির মিয়া, রুবেল মিয়া, তাজু মিয়া বক্তব্য রাখেন। এ সময় তারা পুলিশ প্রশাসনের কাছে গ্রামের যুবক ছাত্রদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান। এ ব্যাপারে ভুনবীর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ সাংবাদিকদের বলেন, ‘শ্রীমঙ্গল উপজেলার সব ইউনিয়নে শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। আর নির্বাচনী প্রতিহিংসা বলে কোনো কথা নেই, আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালানোর অংশ হিসেবে মিথ্যা অভিযোগ করা হচ্ছে’।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর