× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ২০ মে ২০২২, শুক্রবার , ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৮ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

বাংলাদেশ ব্যাংকের ৪ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে ৪ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার
২৫ জানুয়ারি ২০২২, মঙ্গলবার

বিদেশে পলাতক প্রশান্ত কুমার হালদারের (পি কে হালদার) ৩টি বেসরকারি আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে সাড়ে ৪ হাজার কোটি টাকা আত্মসাতের ঘটনায় বাংলাদেশ ব্যাংকের ৪ জন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। গতকাল সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুদকের প্রধান কার্যালয়ে তাদের প্রায় ৪ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। যাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়- বাংলাদেশ ব্যাংকের যুগ্ম পরিচালক মোহাম্মদ ফেরদৌস কবির ও এ বি এম মোবারক হোসেন, উপ-পরিচালক মো. হামিদুল আলম ও সহকারী পরিচালক মো. কাদের।
এর আগে গত ১৮ই জানুয়ারি পিকে হালদার ইস্যুতে বক্তব্য দেয়ার জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকের ৪ কর্মকর্তাকে নোটিশ পাঠায় দুদক। দুদকের উপ-পরিচালক ও তদন্তকারী কর্মকর্তা গুলশান আনোয়ার প্রধান এ নোটিশ পাঠান। নোটিশে ২৪শে জানুয়ারি সকাল ১০টা থেকে সাড়ে ১১টার মধ্যে দুদক কার্যালয়ে এসে তাদের বক্তব্য দিতে বলা হয়।
দুদক সূত্র জানায়, বিভিন্ন অস্তিত্বহীন প্রতিষ্ঠানের নামে পি কে হালদার গং ইন্টারন্যাশনাল লিজিং, পিপলস লিজিং এবং এফএএস ফাইন্যান্স ও ইন্টারন্যাশনাল লিজিং থেকে প্রায় সাড়ে ৪ হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ করে বিদেশে পাচার করে। এ বিষয়ে দুদক মোট ২২টি মামলা করে। এখন দুদক জানতে চায়, ওই প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে অর্থ আত্মসাতের ঘটনায় বাংলাদেশ ব্যাংকের মনিটরিংয়ে দুর্বলতা, অডিট প্রতিবেদনে তথ্য গোপনসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের কী কী দুর্বলতা ছিল, সেসব বিষয় উদ্‌?ঘাটন করা।
তদন্তের অংশ হিসেবে আজ ৪ কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তদন্তে অন্য কোনো কর্মকর্তার যোগসাজশ পাওয়া গেলে তাদেরও জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর