× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ১৬ মে ২০২২, সোমবার , ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৪ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

হেফাজত-জামায়াত-জঙ্গিরা বদলায়নি: ইনু

অনলাইন

সংসদ রিপোর্টার
(৩ মাস আগে) জানুয়ারি ২৬, ২০২২, বুধবার, ৭:১৮ অপরাহ্ন

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল- জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু বলেছেন, মৌসুমে মৌসুমে জঙ্গি তাণ্ডব ও জঙ্গি হামলার ঘটনা ঘটে চলেছে। এতে প্রমাণ হয়, হেফাজত-জামায়াত-জঙ্গিরা বদলায়নি। এরা বাংলাদেশের রেজিস্টার্ড বেঈমান। পাকিস্তানপন্থার ধারক ও বাহক। এদের আত্মা পাকিস্তানি। বুধবার জাতীয় সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনা ধন্যবাদ প্রস্তাব নিয়ে সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে এব কথা বলেন। তিনি আরো বলেন,সাম্প্রদায়িক চক্র বাংলাদেশের ধর্মনিরপেক্ষতাকে হারাম বলে। আর ভারত, আমেরিকা, ইংল্যান্ডে গেলে তারা ধর্মনিরপেক্ষতাকে হালাল বলে।
আরাম মনে করে। এই দ্বিমুখী চালবাজির রাজনীতি বন্ধ করা দরকার। এতে প্রমাণ হয়, জেএমবি-জামায়াত-জঙ্গিরা হচ্ছে মাঠের অ্যাক্টর। জামায়াত হচ্ছে ডিরেক্টর। বিএনপি হচ্ছে প্রডিউসার। সুতরাং এরা পাকিস্তানি রুহানি শক্তি দ্বারা পরস্পর সংযুক্ত। জেনেটিক্যালি সম্পর্কযুক্ত। তিনপক্ষকেই দমন ও বিদায় জানানো উচিত। হেফাজতের বিভিন্ন তাণ্ডব, ধ্বংস ও এর ক্ষয়ক্ষতির ওপর শ্বেতপত্র প্রকাশের দাবি করেন তিনি। কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যরা (ভিসি) শিক্ষার্থীদের সরকারের বিরুদ্ধে ক্ষেপিয়ে তুলছেন বলে অভিযোগ করে হাসানুল হক ইনু বলেন, কিছু সমস্যা যা কাঁটার মত পায়ে বিঁধছে। সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসিদের কারও কারও কাণ্ডজ্ঞানহীন কথাবার্তা, আচার-আচরণ দুঃখজনক। এবিষয়ে সরকারের নজর দেয়া দরকার। ১৯৭১ সালে গণহত্যার জন্য পাকিস্তানের ক্ষমা চাওয়ার দাবি আন্তর্জাতিক পর্যায়ে তোলার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান জাসদ সভাপতি। তিনি বলেন, দূর্গোৎসবসহ অন্যান্য সময়ে দেশের বিভিন্ন এলাকায় সাম্প্রদায়িক হামলা হয়েছে। তা দেখে মনে হয়েছে, ওইখানে সরকার নেই, আইন নেই। আওয়ামী লীগ নেই। প্রশাসন নেই। জাসদ নেই। ১৪ দল, এমনকি এমপি-মন্ত্রী নেই। তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষে জাতির পিতার ভাস্কর্য, ম্যুরাল ভাঙা হয়েছে। অনেকেই যারা মুজিব কোট পরে, তারা ভয়ে মুজিব মিনার বানানোর প্রস্তাব দিয়েছে। এটা দুঃখজনক। সংবিধান পর্যালোচনা প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরে হাসানুল হক ইনু বলেন, সংবিধান পর্যালোচনা ও সংস্কার করা দরকার। সেজন্যই সংবিধান পর্যালোচনার জন্য সংসদের বিশেষ কমিটি গঠনের প্রস্তাব করছি। তিনি আন্তঃসীমান্ত নদীর পানিবণ্টন নিশ্চিতে উদ্যোগ নেওয়ার এবং নদী কমিশনকে সক্রিয় করার আহ্বান জানান।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
MD Emdadul Hoque
২৬ জানুয়ারি ২০২২, বুধবার, ১০:৪৪

আল্লাহর দল কখনো বদলায় না, শয়তানের দল বদলায়।

Mahbub Rahma
২৬ জানুয়ারি ২০২২, বুধবার, ৯:২০

Amazing word is taken.kaks

Shobuj Chowdhury
২৬ জানুয়ারি ২০২২, বুধবার, ৯:৩২

There are pictures in archive where you were seen asking the blessings and the cooperation from Nizami and Golam Azam on caretaker government.

আল আমিন
২৬ জানুয়ারি ২০২২, বুধবার, ৮:০৯

ইনুনু সাহেব কি বদলেছেন, অন্যের বদলানো দেখার আগে নিজের মানুষিকতা বদলে নিন।

ক্ষুদিরাম
২৬ জানুয়ারি ২০২২, বুধবার, ৮:৩৪

"হেফাজত-জামায়াত" কতা সইত্য ! হেরা আগেও যে নীতি নিয়া চইলতো অহোনও তাই নিয়াই আছে, সত্য কইছেন বাহে। লেকিন ইনুনুনু সাহেব ঠিকই বদলায় গেছেন। ঐযে মাত্র সেদিন তিনি ট্যাঙ্কের উপর দাড়ায়া কি যেন কইছিলেন আর আজ তিনি ঠিকই বদলায় গ্যাছেন ! বাজান আফনে ক্যামনে পারেন বাজান ??!!

Zahir
২৬ জানুয়ারি ২০২২, বুধবার, ৭:৩০

Ar hba na .trying to get ministry again.

Salim
২৬ জানুয়ারি ২০২২, বুধবার, ৭:৪৭

Kane Pani ekhono jai nai wait and see

jalal Ahmed
২৬ জানুয়ারি ২০২২, বুধবার, ৭:৩৬

ইনু সাহেব ওরা আপনার মতো চামচামী করেনা তাই ওরা বদলায়নি...

অন্যান্য খবর