× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ১৯ মে ২০২২, বৃহস্পতিবার , ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৭ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

শাবিপ্রবি শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে সমর্থন জাবি শিক্ষকদের

বাংলারজমিন

জাবি প্রতিনিধি
২৭ জানুয়ারি ২০২২, বৃহস্পতিবার

 শাহ্‌জালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (শাবিপ্রবি)-এ চলমান শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে সংহতি জানিয়ে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি)এর শিক্ষকবৃন্দ। গতকাল বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বেলা সাড়ে ১১টায় এই কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। কর্মসূচিতে জাবির বিভিন্ন বিভাগ থেকে ১০ জন শিক্ষক ও অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।
অবস্থান কর্মসূচিতে  অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক আনু মোহাম্মদ বলেন, শাবিপ্রবির ভিসির বিরুদ্ধে অনিয়মের আন্দোলনে সাধারণ শিক্ষার্থীদের ওপরে ছাত্রলীগের পেটোয়া বাহিনী ও পুলিশের নির্মম অত্যাচারের প্রতি ধিক্কার জানাই ও শিক্ষার্থীদের এই আন্দোলনের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করছি। শাবিপ্রবি’র ভিসির পদত্যাগের সঙ্গে যে ৩৩ জন ভিসি পদত্যাগের ইচ্ছা পোষণ করেছেন আমরা চাই সেই ইচ্ছাও বাস্তবায়ন হোক। আমরা ইউজিসির নিকট দাবি জানাই যে সকল পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসিদের বিশ্ববিদ্যালয়ে সংস্কারগত উন্নয়নের সুস্পষ্ট চিত্র যেন সাধারণ জনগণের নিকট তুলে ধরে। এ সময় দর্শন বিভাগের অধ্যাপক আনোয়ারুল্লাহ ভূঁইয়া বলেন, বাংলাদেশের প্রতিটি সেক্টরে অগণতান্ত্রিক ও দুর্নীতির আখড়া গড়ে তোলা হয়েছে। শাবিপ্রবি’র ভিসিকে টিকিয়ে রাখার জন্য শিক্ষামন্ত্রী তৎপর, কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার উন্নয়নে তাকে দেখা যায় না। বিশ্ববিদ্যালয়গুলো অন্তঃসারশূন্য হয়ে পড়েছে, আমরা রাষ্ট্রকে অন্তঃসারশূন্যতার দিকে ঠেলে দিতে চাই না।
আশা করি তাদের বিজয়ের মধ্যদিয়ে সব শিক্ষার্থীদের বিজয় হবে। নৃ-বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মির্জা তাসলিমা সুলতানা বলেন,  শিক্ষার্থীরা প্রায় ১৬০ ঘণ্টা ধরে অনশন করেছে যা বর্তমান সময়ে বিরল ঘটনা। তাদের মধ্যে কোনো ষড়যন্ত্র বা হঠকারিতা দেখা যায়নি বরং সরকারের সকল ক্ষেত্র থেকে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। তাদেরকে উস্কানি, হুমকি, নির্যাতন করে সুশৃঙ্খল আন্দোলনে ব্যাঘাত ঘটানো হচ্ছে। এ সময়ে আরও উপস্থিত ছিলেন ড. শামীমা সুলতানা, ড. সাঈদ ফেরদৌস প্রমুখ।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর