× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ১৬ মে ২০২২, সোমবার , ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৪ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

আফকন /টাইব্রেকার জিতে কোয়ার্টারে সালাহর মিশর

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক
২৭ জানুয়ারি ২০২২, বৃহস্পতিবার

প্রিমিয়ার লীগের অন্যতম সেরা খেলোয়াড় মোহাম্মদ সালাহ। লিভারপুলের জার্সিতে প্রতিনিয়ত ছড়ান দ্যুতি। সালাহর তারকা খ্যাতিতে জাতীয় দল নিয়ে মিশর ভক্তদের প্রত্যাশা স্বাভাবিকভাবেই উচ্চাঙ্গে। তবে দলীয় খেলা ফুটবলে যে একক নৈপুণ্য যথেষ্ট নয়, সেটি অজানা নয় কারোর। যেকারণে বিশ্বসেরা তারকা ফুটবলার থাকার পরও আফ্রিকান কাপ অব নেশনসে (আফকন) তেমন দাপট নেই মিশরের। একের পর এক জয় পেলেও আহামরি কোনো পারফরম্যান্স এখন পর্যন্ত দেখায়নি ইজিপশিয়ানরা। সর্বশেষ শেষ ষোলোর ম্যাচে জয় পেতে টাইব্রেকার ভাগ্যে ভরসা করতে হয়েছে সালাহদের। রোমাঞ্চ জাগানিয়া ম্যাচে পেনাল্টি শুট আউটে আইভরি কোস্টকে ৪-৫ ব্যবধানে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে পৌঁছায় মিশর।

আক্রমণভাগে মোহাম্মদ সালাহর উপস্থিতিতেও মিশর খেলছে রক্ষণাত্মক ফুটবল।
নিজেরা আক্রমণে না গিয়ে ফারাওরা অপেক্ষা করছে প্রতিপক্ষের ভুলের। তবে কোচ কুইরোজের কৌশলে ঢিমেতালে চলা মিশর সাফল্য পাচ্ছে ঠিকই। প্রথম ম্যাচে ঘানার বিপক্ষে ১-০ গোলের হারে আফকন মিশন শুরু হয় সালাহদের। দ্বিতীয় ম্যাচে গিনিকে ১-০ গোলে হারিয়ে কক্ষপথে ফেরে মিশর। এরপর সুদানের বিপক্ষেও ১-০ ব্যবধানের জয়। কোয়ার্টার ফাইনালে পৌঁছে কোচ কুইরোজ আনন্দিত এবং দলের খেলায় সন্তুষ্ট তিনি। ম্যাচ শেষে কুইরোজ বলেন, ‘আমরা শেষ ম্যাচ থেকে ভালো খেলেছি। অনুশীলনের সময় যা করেছি মাঠে তারই প্রতিফলন দেখেছি আমি। আমরা আমাদের ঘাটতি গুলো চিহ্নিত করতে কাজ করেছি। সেরা দল হিসেবেই জয় পেয়েছি আমরা।’

গোটা ম্যাচে দুর্দান্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছে আইভরি কোস্ট ও ইজিপ্ট। ৫৬ শতাংশ বল দখলে রেখে প্রতিপক্ষের গোলবারের উদ্দেশ্যে মোট ১৩টি শট নেয় আইভরি কোস্ট। যার মধ্যে লক্ষ্যে ছিল ৮টি। অপরদিকে ৪৪ শতাংশ বল দখলে রেখে ২১টি শটের ৫টি লক্ষ্যে রাখে মিশর।

নির্ধারিত সময়ে ম্যাচ নিষ্পত্তি না হলে গড়ায় টাইব্রেকারে। পেনাল্টি শুট আউটে ৫টি শটের সবকটিতে লক্ষ্যভেদ করে মিশরীয় ফুটবলাররা। আইভরি কোস্টের হয়ে তৃতীয় শট নিতে আসা এরিক বেইলি লক্ষ্যভেদ করতে পারেননি। আর তাতেই আফকন শিরোপার স্বপ্ন ভঙ্গ হয় আইভরি কোস্টের।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর