× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ১৭ মে ২০২২, মঙ্গলবার , ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৫ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

চট্টগ্রামে শুরু চার-ছক্কার লড়াই

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার
২৮ জানুয়ারি ২০২২, শুক্রবার

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ (বিপিএল)-এর চট্টগ্রাম পর্ব শুরু হচ্ছে আজ। জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে দিনের প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হবে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ও খুলনা টাইগার্স। ম্যাচটি শুরু হবে বেলা দেড়টায়। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় মিনিস্টার ঢাকা মোকাবেলা করবে সিলেট সানরাইজার্সের। ঢাকার পর এই পর্বেও অনুষ্ঠিত হবে আটটি ম্যাচ।
মিরপুর শেরেবাংলায় প্রথম পর্বের লড়াই শেষে দুই ম্যাচে পূর্ণ চার পয়েন্ট নিয়ে সবার উপরে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। সেখানে তিন ম্যাচে দুই জয়ে সমান চার পয়েন্ট চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের। আছে একটি হার।
নেট রান রেটে পিছিয়ে থাকায় দলটির অবস্থান দুইয়ে। এরপরের চারটি দলেরই সমান ২ পয়েন্ট। নেট রান রেটের হিসেবে যথাক্রমে এর পরের দলগুলো ফরচুন বরিশাল, খুলনা টাইগার্স, সিলেট সানরাইজার্স ও মিনিস্টার গ্রুপ ঢাকা। চলতি বঙ্গবন্ধু বিপিএলে করোনা পজিটিভ হয়ে ফরচুন বরিশালের পক্ষে প্রথম ম্যাচ খেলতে পারেননি নুরুল হাসান সোহান। পরবর্তী দুই ম্যাচে সেরা একাদশে জায়গা পেলেও বলার মত পারফর্ম করতে পারেননি, দলও হেরেছে টানা। তবে এ পর্বে দলের হয়ে ঘুরে দাঁড়াতে চান সোহান। তিনি বলেন, ‘আমার কাছে মনে হয় যে টিম হিসেবে আমাদের খেলাটা গুরুত্বপূর্ণ। যেহেতু লেট মিডল অর্ডারে আমি ব্যাটিং করি তো আমার কাছে রিদমে আসাটা অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ টিমের জন্য।’
পয়েন্ট তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে থাকা তারুণ্য নির্ভর দল চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স খেলেছে তিন ম্যাচ। এর মধ্যে দু’টিতে জয় একটিতে হার। আজ নিজেদের মাঠে তাদের সামনে ঘুরে দাঁড়ানোর লড়াই। শীর্ষে থাকা কুমিল্লার প্রথম ম্যাচে প্রতিপক্ষ ছিল অপেক্ষাকৃত দুর্বল দল সিলেট। কিন্তু এই দলের বিরুদ্ধে জিততেও ঘাম ঝরাতে হয়েছে কুমিল্লাকে। দ্বিতীয় ম্যাচে অবশ্য দাপুটে অবস্থানে ছিল ইমরুল কায়েসের নেতৃত্বাধীন দলটি। বোলিং, ব্যাটিং, ফিল্ডিং- তিন বিভাগেই কুমিল্লা ছিল দেখার মতো। সাকিবের বরিশালকে তারা হারায় ৬৩ রানের বড় ব্যবধানে। এই ম্যাচ দিয়ে শেষ হয় বিপিএলের প্রথম ঢাকা পর্ব। চট্টগ্রামের পর সাকিব আল হাসানের ফরচুন বরিশালের অবস্থান। যদিও দলটি বেশ ব্যালেন্সড। শুরুটা ভালো হলেও শেষের দুটি ম্যাচ হতাশায় পুড়িয়েছে তাদের। সবশেষ বরিশালের হার কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের বিপক্ষে। ওই ম্যাচে বরিশালকে ভুগিয়েছে দুর্বল ব্যাটিং। সর্বোচ্চ ৩৬ রান আসে নাজমুল হোসেন শান্তর ব্যাট থেকে। বরিশাল এই ম্যাচে অল আউট হয়েছিল মাত্র ৯৫ রানে। চট্টগ্রাম পর্বে বরিশাল তেতে থাকবে, তা সহজেই অনুমেয়।
চতুর্থ স্থানে মুশফিকুর রহিমের খুলনা টাইগার্স। আজ দলটি মুখোমুখি হবে ঢাকার। দুই ম্যাচে দলটির জয় ও হার একটি করে। সেই হিসাবে বরিশালের চেয়ে ভালো অবস্থানে খুলনা। তারকাসমৃদ্ধ দল মিনিস্টার গ্রুপ ঢাকার অবস্থা বেশ করুণ। যদিও দলটিকে বেশি ম্যাচ খেলতে হয়েছে। কিন্তু সেই হিসেবে আসেনি সাফল্য। এই দলে রয়েছে ক্রিকেটের তিন পাণ্ডব। অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহর সঙ্গে আছেন তামিম ইকবাল ও মাশরাফি বিন মুর্তজা। চোটের কারণে প্রথম তিন ম্যাচ খেলতে পারেননি মাশরাফি। ঢাকার বিপিএল মিশন শুরু হয় খুলনার সঙ্গে হার দিয়ে। দ্বিতীয় ম্যাচেও হার চট্টগ্রামের কাছে। টানা দুই ম্যাচেই ফিফটি করে নিজেকে জানান দেন ড্যাশিং ওপেনার তামিম ইকবাল। তৃতীয় ম্যাচে গিয়ে হারের বৃত্ত ভাঙে ঢাকা। বরিশালের বিপক্ষে মাহমুদুল্লাহরা পায় ৪ উইকেটের জয়। চতুর্থ ম্যাচে দীর্ঘদিন পর ঢাকার হয়ে মাঠে ফেরেন মাশরাফি। তবে সিলেটের কাছে হজম করতে হয় বাজে হার। সবমিলিয়ে বিপিএলে ঢাকার পর্বটা মোটেও ভালো যায়নি মাহমুদুল্লাহদের।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর