× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৮ জানুয়ারি ২০২১, বৃহস্পতিবার

ম্যারাডোনাকে নিয়ে আসিফ নজরুলের আবেগঘন স্ট্যাটাস

অনলাইন

অনলাইন ডেস্ক
(২ মাস আগে) নভেম্বর ২৬, ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৫:৫২ পূর্বাহ্ন

ম্যারাডোনাকে নিয়ে আবেগঘন স্ট্যাটাস দিয়েছেন লেখক, ঔপন্যাসিক, রাজনীতি-বিশ্লেষক, সংবিধান বিশেষজ্ঞ, কলামিস্ট ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তার ভেরিফাইড পেইজে তিনি এ স্ট্যাটাস দেন।  স্ট্যাটাসটি দৈনিক মানবজমিন পাঠকদের জন্য হুবহু তুলে ধরা হলো-

তিনি লিখেছেন, ম্যারাডোনার মৃত্যু সংবাদ পাই রাত ১২টার পর। সে হঠাৎ মারা যেতে পারে এটা বোধহয় জানতাম। তবু আমার মাথা গুলিয়ে উঠলো, বুক খালি হয়ে গেল। ঘুম ভুলে অনেক রাত পযন্ত ভাবি তার কথা। কেন এ ড্রাগ খাওয়া, চিট করা, গুলিছোড়া মানুষটা এতো প্রিয় আমাদের?

সে ছিল ম্যাজিশিয়ান, বিদ্রোহী, বিজয়ী। ওয়ান অব দ্য গ্রেটেস্ট না, গ্রেটেস্ট। পেলে বা মেসি বা রোনাল্ডোর চেযেও বড় কিছু। অন্যরা ১১ জনকে নিয়ে খেলে, সে নিজে ১১ জনের খেলা খেলে।
অন্যরা দলকে পরাজিত করে, সে পরাজিত করে সাম্রাজ্যকে।

আমাদের জীবন ম্যারাডোনাময়। ফকল্যান্ড যুদ্ধের পর ১৯৮৬ সালে তার ইংল্যান্ড জয়ে আমরা কি দেখিনি নিজেরও সবচেয়ে আনন্দময় বিজয়? বিশ্বকাপ তুলে ধরা তার হাত কি আমাদেরও হাত না?

আমাদের কাছে পৃথিবীর দুভাগ। একভাগ ম্যারাডোনার খেলা দেখেছে। আরেকভাগ দেখেনি। আমাদের জীবন অনেকটা ডিফাইন্ড ম্যারাডোনা প্রেমে।

কেমন করে তাহলে মৃত্যু হয় ম্যারাডোনার? আমাদের জীবিতকালে?

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Ashraf Chowdhury
২৬ নভেম্বর ২০২০, বৃহস্পতিবার, ১:৫০

ম্যারাডোনার তুলনা ম্যারাডোনা।সে বিশ্বের ফুটবল প্রেমিদের নয়নের মনি।এই খেলাকে সে শিল্পের রুপে বিশ্বকে উপহার দিয়াছে।আমাদের জীবিতকালে এতবড় একজন বিশ্বযোদ্বাকে হারালাম আমরা।তুমি যেখানে থাক ভাল থাক।

Augustine Amal D'Roz
২৬ নভেম্বর ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৬:৩৫

He is the champion of champions. Heroes never die, they live forever and leave behind legacy. He is our super hero.

অন্যান্য খবর