× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১, বৃহস্পতিবার

আগামীতে রেমিট্যান্সের ইতিবাচক ধারা অব্যাহত থাকা নিয়ে সংশয় সিপিডির

অনলাইন

অর্থনৈতিক রিপোর্টার
(১ মাস আগে) জানুয়ারি ১৭, ২০২১, রবিবার, ২:১৯ অপরাহ্ন

করোনাকালে বিপুলসংখ্যক বাংলাদেশি প্রবাসী শ্রমিক কাজ হারিয়ে দেশে ফিরলেও রেমিট্যান্স প্রবাহে ছিল ঊর্ধ্বমুখী ধারা। গত জুলাই থেকে ডিসেম্বরে রেমিট্যান্স বেড়েছে ৩৮ শতাংশ।

তবে কাঙ্ক্ষিত হারে বিদেশে কাজের সুযোগ না থাকায় আগামীতে এই ধারা অব্যাহত থাকা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছে সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি)।

রোববার প্রবাসী আয় পরিস্থিতি বিষয়ে ভার্চুয়াল সংলাপে এ শঙ্কা প্রকাশ করেন বক্তারা।

তারা বলেন, গেল বছর বিপুল পরিমাণ রেমিট্যান্স এসেছে। সরকারের ২ শতাংশ প্রণোদনা ও মোবাইল ব্যাংকিং সেবার ফল পাওয়া গেছে।

মূল প্রবন্ধে বলা হয়, অতিমারির ধাক্কায় পুরো বিশ্বের অর্থনীতি পর্যুদস্ত। কমে গেছে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য। সেখানে বাংলাদেশের রেমিট্যান্স প্রবাহ দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। এটি আশার দিক। তবে আগামীতে এই ধারা অব্যাহত থাকবে কিনা তা নিয়ে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে।

বক্তারা আরো বলেন, বিপুলসংখ্যক প্রবাসী শ্রমিক কাজ হারিয়ে দেশে ফিরেছেন। অনেকে তাদের কর্মস্থলে ফিরে যেতে পারেননি।
প্রবাসী আয়ের ক্ষেত্রে এর প্রভাব নিয়ে সবাই শঙ্কিত। তাদের আবার বিদেশে কাজের সুযোগ তৈরি করে দেয়ার আহ্বান জানান বিশ্লেষকরা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Kazi
১৭ জানুয়ারি ২০২১, রবিবার, ৫:২৮

রেমিট্যান্স মিডিল ইস্ট থেকে নয় ইউরোপ ও আমেরিকা থেকে বেশী এসেছে তুলনামূলক ভাবে। কারণ এসব দেশে করোনায় সরকারী প্রণোদনা বেতনের চাইতে বেশী । তাই মানুষ গরীবকে সাহায্য করতে বেশী বেশী টাকা পাঠাচ্ছে। কত দিন চলবে তা বলা কঠিন। হঠাৎ কমেও যাবে। এটা সত্য ।

অন্যান্য খবর