× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২৭ জুলাই ২০২১, মঙ্গলবার, ১৬ জিলহজ্জ ১৪৪২ হিঃ

‘লজ্জা’র রেকর্ডের ম্যাচে বিবর্ণ লেভানদোভস্কি

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক
১৬ জুন ২০২১, বুধবার

বায়ার্ন মিউনিখের দুর্দান্ত ফর্মটা জাতীয় দলে টেনে আনতে ব্যর্থ রবার্ট লেভানদোভস্কি। দলের সেরা তারকার বিবর্ণ দিনে হতাশায় ইউরো মিশন শুরু পোল্যান্ডের। দশজনের পোলিশদের ২-১ গোলে হারিয়ে দারুণ শুরু পেয়েছে স্লোভাকিয়া। তবে সব ছাপিয়ে রেকর্ড গড়লেন পোলিশ গোলরক্ষক ভয়চেখ সেজনি ও মিডফিল্ডার জেগোস ক্রিখোভিয়াক।
রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গে ‘ই’ গ্রুপের ম্যাচে ধারার বিপরীতে এগিয়ে যায় স্লোভাকিয়া। গোলটি পোলিশ গোলরক্ষের আত্মঘাতী হলেও এর পুরো কৃতিত্ব রবের্ত মাকের। বাম প্রান্ত দিয়ে দুই ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে ভেতরে ঢুকে কাছের পোস্টে নিচু শট নেন মাক। বল ঝাঁপিয়ে পড়া সেজনির হাতে লেগে পোস্টে বাধা পেয়ে ফিরে তার পিঠে লেগে জালে জড়ায়। তবে এই গোলেই লজ্জার রেকর্ড গড়েন জুভেন্টাস তারকা।
ইউরোর ইতিহাসে প্রথম গোলরক্ষক হিসেবে আত্মঘাতী গোলটি করেন তিনি।
প্রথমার্ধে ৬০ শতাংশ বল দখলে রাখা পোল্যান্ড কোনো সুযোগই তৈরি করতে পারেনি। তবে বিরতি থেকে ফিরেই সমতায় ফেরে তারা। গোছালো আক্রমণে সতীর্থের কাটব্যাক পেয়ে কাছ থেকে লক্ষ্যভেদ করেন লিনাটতে। ৬২তম মিনিটে ১০ জনের দলে পরিণত হয় পোল্যান্ড। দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন মিডফিল্ডার জেগোস ক্রিখোভিয়াক। প্রথমার্ধে ২৪ মিনিটে প্রথম হলুদ কার্ড দেখেছিলেন তিনি। পোল্যান্ডের তৃতীয় খেলোয়াড় হিসেবে বড় মঞ্চে লাল কার্ড দেখেন ক্রিখোভিয়াক। ইউরোর ইতিহাসে দ্বিতীয় দল হিসেবে একই ম্যাচে আাত্মঘাতী গোল ও লাল কার্ডের দেখা পেলো পোল্যান্ড। প্রথম দল হিসেবে ১৯৭৬ সালের ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে প্রথম এমন রেকর্ড গড়েছিল চেকোস্লোভাকিয়া।
দশজনের পোলিশদের পেয়ে সুযোগ কাজে লাগাতে সময় নেয়নি স্লোভাকিয়া। ৬৯তম মিনিটে ডি-বক্সের মধ্যে স্ক্রিনিয়ারের নেয়া শট প্রতিপক্ষের অনেকের মধ্যে দিয়ে ঠিকানা খুঁজে নেয়। ডানে ঝাঁপিয়েও বলের নাগাল পাননি স্ট্যাসনি।
গত মৌসুমে বায়ার্নের জার্সিতে ৪১ গোল করেছেন লেভানদোভস্কি। জার্মান কিংবদন্তি গার্ড মুলারের ১৯৭১-৭২ মৌসুমের ৪০ গোলের রেকর্ড ভেঙে নিশ্চিত করেছেন টানা দ্বিতীয়বার ইউরোপিয়ান গোল্ডেন বুট জয়। ইউরোয় পোলিশ স্ট্রাইকারকে ভাবা হচ্ছে অন্যতম সেরা হিসেবে। তবে প্রথম ম্যাচে পুরোপুরি ব্যর্থ তিনি। পোলিশদের সর্বোচ্চ গোলদাতা (৬৬ গোল) স্লোভাকিয়ার বিপক্ষে দুই অর্ধে দু’টি হাফ-চান্স পেয়েছিলেন, কিন্তু তার কোনো প্রচেষ্টাই লক্ষ্যে ছিল না।
আগামী শুক্রবার নিজেদের পরের ম্যাচে স্লোভাকিয়া খেলবে সুইডেনের বিপক্ষে। পরের দিন পোল্যান্ডের প্রতিপক্ষ স্পেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর