× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, সোমবার , ৫ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১১ সফর ১৪৪৩ হিঃ

সাদুল্লাপুরে বাড়ছে সংক্রমণ কমছে সচেতনতা

দেশ বিদেশ

সাদুল্লাপুর (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি
২৮ জুলাই ২০২১, বুধবার

গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলায় প্রতিনিয়ত করোনা পরিস্থিতি অবনতির দিকে যাচ্ছে। সংক্রমণ বিস্তার প্রতিরোধে চলমান রয়েছে লকডাউন। তবে এই লকডাউন মানতে মানুষের উদাসীনতা দেখা দিয়েছে। তারা কিছুতেই মানছেন না সরকারি বিধিনিষেধ। গতকাল সাদুল্লাপুর শহরসহ বিভিন্ন উপজেলা শহর ও হাট-বাজারে দেখা যায় মানুষের অবাধ চলাচল। তারা মাস্কসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি না মেনে জনসমাগম স্থলে নির্বিকারে চলাচল করছে। জানা যায়, গত জুন মাসে সাদুল্লাপুর উপজেলায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছিল ৫৪ জন। এরপর থেকে ধীরে ধীরে সংক্রমণ বিস্তার হতে থাকে।
ছড়িয়ে পড়ে শহর থেকে গ্রামে। ফলে চলতি মাসের ২৫ দিনে এই জেলা নতুন করে আরও ১১৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ ছাড়া মত্যুবরণ করেছেন ২ জন। এদিকে, সংক্রমণ প্রতিরোধে সারা দেশের ন্যায় সাদুল্লাপুরে চলমান রয়েছে কঠোর লকডাউন। এটি বাস্তবায়নে প্রশাসনসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা সার্বক্ষণিক মাঠে রয়েছেন। বিনা প্রয়োজনে মানুষের ঘরের বাহিরে যাওয়া ঠেকাতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন তারা। কিন্তু সেটি মানছেন না এ অঞ্চলের মানুষ। প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে রাস্তাঘাটে বিভিন্ন যানবাহনে মানুষ চলাচল করছে অবাধে। শপিংমল ও হাট-বাজারের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানও খোলা রাখা হয়েছে কৌশলে। অনেকে বিয়ের অনুষ্ঠানসহ বিভিন্ন ধরনের সভা-সেমিনার অব্যাহত রাখছে। এসব কিছু উন্মুক্ত থাকায় মানুষের স্বাস্থ্যবিধি ছাড়াই চলাফেরা করতে দেখা গেছে। নাম প্রকাশ না করা শর্তে একাধিক সিএনজিচালক বলেন, টানা লকডাউনের কবলে থমকে গেছে জীবন-জীবিকা। এভাবে ঘরে বসে থাকলে না খেয়ে মরতে হবে। তাই বাঁচার তাগিদে লকডাউন ভঙ্গ করে গাড়ি নিয়ে যাত্রী বহন করছি। সাদুল্লাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নবী নেওয়াজ বলেন, কোভিড-১৯ বিস্তার রোধে লকডাউন বাস্তবায়নে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের নেতৃত্বে সেনাবাহিনী, র‌্যাব, বিজিবি, পুলিশ ও আনসার সদস্যরা মাঠে কাজ করছে। মন্ত্রীপরিষদ বিভাগের বিধিনিষেধ মানাতে মানুষদের সতর্ক করা হচ্ছে। এটি যারা মানছেন না তাদের জরিমানাও করা হচ্ছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর