× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ২৯ মে ২০২২, রবিবার , ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৭ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

স্প্যানিশ ফুটবল কোচ হাভিয়ের কাবরেরা এখন ঢাকায়

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার
১৬ জানুয়ারি ২০২২, রবিবার

জাতীয় দলের নতুন স্প্যানিশ কোচ হাভিয়ের কাবরেরা এখন ঢাকায়। গতকাল রাত ৮টায় হযরত শাহজালাল (র.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছেন বৃটিশ কোচ জেমি ডে’র এই উত্তরসূরি। কাবরেরা বাংলাদেশের তৃতীয় স্প্যানিশ কোচ। এর আগে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্য আরও দুই স্প্যানিশ কোচ গঞ্জালো মরেনো ও অস্কার ব্রুজোন জাতীয় দলের কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। হাভিয়ের বাংলাদেশের ২৩তম বিদেশি কোচ। ইন্দোনেশিয়ার বালিতে ফিফা উইন্ডোতে ২৪ ও ২৭শে জানুয়ারি দু’টি প্রীতি ম্যাচ খেলার ভাবনা থেকেই দ্রুত এই কোচকে নিয়োগ দেয় বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। কিন্তু জাতীয় দলের অধিকাংশ ফুটবলারের দুই ডোজ করোনা ভ্যাকসিন না থাকায় ওই সফর বাতিল করতে বাধ্য হয় দেশের ফুটবলের সর্বোচ্চ এই সংস্থাটি। ফলে বাংলাদেশে এলেও জাতীয় দল নিয়ে আপাতত কোন অ্যাসাইনমেন্ট নেই কাবরেরার।
ঘরোয়া ফুটবল দেখেই সময় কাটাতে হবে তাকে। নতুন কোচ এরমধ্যে ফুটবলারদের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয় শেয়ার করবেন বলে জানা গেছে। জাতীয় দলের বাইরে বয়সভিত্তিক দলের সঙ্গেও সুযোগ পেলে কাজ করবেন কাবরেরা। ৩৭ বছর বয়সী স্প্যানিশ এই কোচের সঙ্গে ১১ মাসের চুক্তি করেছে বাফুফে। এ বছরের ডিসেম্বরে শেষ হবে কাবরেরার মেয়াদ। ইন্দোনেশিয়া সফর বাতিল হওয়ায় এখন মার্চে আরেকটি ফিফা উইন্ডোর দিকে চোখ বাফুফের। তার আগে ৪০ থেকে ৫০ জন ফুটবলারের তালিকা করবে বাফুফে। জাতীয় দল ও অনূর্ধ্ব-২৩ দলের খেলোয়াড়দের ভ্যাকসিনেশন নিশ্চিত করার চেষ্টাও করবে। উপমহাদেশে কাজ করার ভালো অভিজ্ঞতা রয়েছে কাবরেরার। ২০১৩ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত ভারতের শীর্ষ ক্লাব স্পোর্টিং গোয়ার মূল দলের সহকারী কোচের দায়িত্বে ছিলেন তিনি। পাশাপাশি টেকনিক্যাল ডিরেক্টর হিসেবে ভারতের ক্লাবটির একাডেমির বিভিন্ন পর্যায়ের খেলোয়াড়দের দীক্ষা দেন কাবরেরা। ২০১৮ সালের মে মাস থেকে আগষ্ট পর্যন্ত চার মাস বার্সা একাডেমিক নর্দান ভার্জিনিয়া শাখায় কাজ করেছেন তিনি। এরপর লা লিগার টেকনিক্যাল ডিরেক্টরের দায়িত্ব পালন করেন ২০২০ সাল পর্যন্ত। এদিকে কাগজে-কলমে এখনো জাতীয় দলের কোচ হিসেবে রয়েছেন জেমি ডে। মাসে মাসে বেতনও দিতে হচ্ছে বৃটিশ এ কোচকে। আগষ্ট মাস পর্যন্ত তার সঙ্গে চুক্তি আছে। চুক্তির মেয়াদ পর্যন্ত বেতন দিতে হবে জেমিকে।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর